Cheap Jerseys Wholesale Jerseys Cheap Jerseys Wholesale Jerseys Cheap Jerseys Cheap NFL Jerseys Wholesale Jerseys Wholesale Football Jerseys Wholesale Jerseys Wholesale NFL Jerseys Cheap NFL Jerseys Wholesale NFL Jerseys Cheap NHL Jerseys Wholesale NHL Jerseys Cheap NBA Jerseys Wholesale NBA Jerseys Cheap MLB Jerseys Wholesale MLB Jerseys Cheap College Jerseys Cheap NCAA Jerseys Wholesale College Jerseys Wholesale NCAA Jerseys Cheap Soccer Jerseys Wholesale Soccer Jerseys Cheap Soccer Jerseys Wholesale Soccer Jerseys
  • Ad 850
  • Ad 850
  • Ad 850
  • Ad 850

ফেনীতে ডেঙ্গু আক্রান্ত ১৭, চিকিৎসাধীন ৭

নিজস্ব প্রতিনিধি
প্রকাশ : | সময় : ৯:০৬ অপরাহ্ণ

ফেনীতেও বাড়ছে ডেঙ্গু আতঙ্ক। গত ২০ দিনে ২৫০ শয্যা বিশিষ্টি ফেনী জেনারেল হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত ১৭ রোগী। এ হাসপাতালে এখনো ৭ রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাদের সবাই রাজধানী থাকায় অবস্থান করার কারণে শরীরে এডিস মশার জীবানু নিয়ে এসেছেন বলে চিকিৎসরা জানিয়েছেন। এদিকে গ্রামীণ প্রত্যন্ত অঞ্চলে ডেঙ্গু রোগ ছড়িয়ে পড়ায় সর্বত্র আতঙ্ক বিরাজ করছে।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, চলতি মাসের শুরু থেকে জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে এডিস মশার জিবানু নিয়ে ১৬ রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়। এদের মধ্যে ৮জন রোগী সুস্থ্য হয়ে ছাড়পত্র নিয়ে হাসপাতাল ত্যাগ করলেও বাকী ২ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। বাকী ৭ জন বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, হাসপাতালের পুরাতন ভবনের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বারান্দা-করিডোর, বিশেষ বেড ও কেবিনে ডেঙ্গু আক্রন্ত হয়ে মহিউদ্দিন (৩০), আরাফাত রহমান (২৩), তাফহিমুল সাওয়ারি ইলেন (১৮), কাজী নজরুল ইসলাম আকাশ (১৮), মো. শরীফ (২৫), নোবেল চন্দ্র দাস (২৩) ও অনিক চন্দ্র দাস (২০) চিকিৎসা নিচ্ছেন।

চিকিৎসাধীন ফেনীর পরশুরাম উপজেলার মালিপাথর এলাকার সিএনজি চালিত অটোরিক্স চালক মো. শরীফ নতুন ফেনী’কে জানান, গত সাপ্তাহে রাজধানীর ল্যাব এইড হাসপাতালে মাকে চিকিৎস করানোর জন্য নিয়ে যান। সেখানে চার দিন অবস্থান করে বাড়ী ফিরলে হাঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। পরে তাকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে ফেনী জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ডাক্তার শরীরে ডেঙ্গুর জীবানু আছে বলে জানান।

একই ভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি কোচিং করতে ঢাকা অবস্থান করে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে বাড়ী চলে আসেন রামপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল হাসেমের ছেলে তাফহিমুল সাওয়ারি ইলেন (১৮) ও ফেনী শহরে থাকা নোয়াখালীর সুবর্ণচর এলাকার অনিক চন্দ্র দাস (২০), ঢাকার ইষ্টার্ণ ইউনির্ভার্সিটির শিক্ষার্থী ও দাগনভূঞা উপজেলার সিলোনিয়া এলাকা আরাফাত রহমান (২৩), একই ইউনির্ভাসির্টির শিক্ষার্থী ও ফেনী শহরের তুলাবাড়িয়া এলাকার নোবেল চন্দ্র দাস (২৩) হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। তারা সেখানে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে ফেনীতে এসে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সোনাগাজী উপজেলার সোনাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থী কাজী নজরুল ইসলাম আকাশ (১৩) ঢাকায় বেড়াতে গিয়ে এডিস জীবানু আক্রান্ত হন। এছাড়া হাসপাতলে মহিউদ্দিন (৩০) নামে এক রোগী ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সোমবার ভর্তি হন হাসপাতালে।

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ফেনী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আবু তাহের পাটোয়ারী নতুন ফেনী’কে জানান, গত কয়েকদিনে হাসপাতালে ডেঙ্গুর জীবানু নিয়ে ১৬জন ভর্তি হয়েছেন। অনেকে সুস্থ্য হয়ে ফিরে গেলেও বর্তমানে ৭ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চিকিৎসকরা তাদের সর্বোচ্চ চিকিৎসা দেয়ার চেষ্টা করছেন বলেও তিনি জানান।

এ বিষয়ে সিভিল সার্জন ডা. নেয়াতুজ্জামান নতুন ফেনী’কে বলেন, এখন পর্যন্ত ফেনীতে কোন এডিস মশার জিবানু আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি। এখানে যারা চিকিৎসা নিচ্ছেন তারা ঢাকা অথবা চট্টগ্রাম থেকে এ জীবানু নিয়ে আসছেন। এ রোগ থেকে রক্ষা পেতে সবাইকে সতর্ক থাকতে পরামর্শ দিয়ে তিনি আরো বলেন, রোগীর অস্বাভাবিক আচারণ দেখলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়ার কথা বলেন তিনি।

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ফেনী জেনারেল হাসপাতালের  তত্ত্বাবধায়ক বিধান চন্দ্র সেন গুপ্ত নতুন ফেনী’কে জানান, পরিস্কার পানিকে এডিস মশা জন্ম নেয়। বিশেষ করে ফুলের টব, ডাবের খোসা, এসির পানিতে এ মশা জন্ম নিতে পারে। তাই এগুলো সব সময় পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। তিনি আরো বলেন, এডিস মশার জীবানু আক্রান্ত কোন রোগীকে মশা কামড় দিলে সে মশার মাধ্যমে ডেঙ্গুর জীবানু ছাড়াতে পারে। এ জন্য সকলকে সতর্ক থাকতে হবে।
সম্পাদনা: আরএইচ/এনজেটি

আপনার মতামত দিন