অবশেষে মুখে হাসি ফুটল চিরদুঃখী সুফিয়ার • নতুন ফেনীনতুন ফেনী অবশেষে মুখে হাসি ফুটল চিরদুঃখী সুফিয়ার • নতুন ফেনী
 ফেনী |
২৯ জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

অবশেষে মুখে হাসি ফুটল চিরদুঃখী সুফিয়ার

নুর উল্লাহ কায়সারনুর উল্লাহ কায়সার
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৩:০৫ অপরাহ্ণ, ২০ জুন ২০২১

অবশেষে ফেনীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া ঘর ও জায়গা পেয়ে মুখে হাসি ফুটেছে চিরদুঃখী সুফিয়ার। স্বামী, সন্তান ও অভিভাবকহীন সুফিয়ার জীবনের তিনটি দশক কেটেছে ঠিকানাহীন। দিনভর ভিক্ষা করার পর যখন যেখানে সন্ধ্যা নেমেছে, তখন সেখানেই বিছানা দিয়ে ঘুমাতে হয়েছে তাকে।

গাছতলা, বটতলা ও মানুষের বাড়ির আঙ্গিনায় পেতে ছিলেন সংসার। কিন্তু আজ সুফিয়ার ঠিকানা করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। পেয়েছেন পাকা বাড়ি ও জায়গা।

শুধু সুফিয়া নয়, মুজিব জন্মশতবর্ষে দ্বিতীয় ধাপে ফেনীতে আরও ৮৪ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার গৃহসহ ভূমি পেয়েছেন রোববার (২০ জুন) সকালে প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সারা দেশের মতো ফেনীতেও ঘরগুলোর উদ্বোধন করা হয়েছে।

রোববার ফেনী সদর উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ফেনীর ৮৪ গৃহহীনের হাতে ঘরের চাবি ও কবুলিয়ত দলিল তুলে দেন স্থানীয় সাংসদ নিজাম হাজারী। এ সময় জেলা প্রশাসক মো. ওয়াহিদুজ্জামানসহ জেলার সকল কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

ফেনী সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা জানান, ফেনীতে ভূমিসহ ঘর প্রাপ্ত সুবিধাভোগীদের মধ্যে সদর উপজেলায় ৬১টি, সোনাগাজী উপজেলায় ১৩টি এবং ফুলগাজী উপজেলায় ১০টি পরিবার রয়েছেন।

তিনি জানান, এসব পরিবারের জন্য গৃহনির্মাণ করে কবুলিয়াত দলিল, নামজারি খতিয়ান, ডিসিআর ও ঘর বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। ১ লাখ ৭১ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মিত এসব ঘরে দুইটি কক্ষ, একটি বারান্দা, একটি শৌচাগার ও একটি রান্নার কক্ষ রয়েছে। এছাড়াও ঘরে বসবাসকারীদের জন্য খাবারের সুপেয় পানিসহ নানা নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করা হয়েছে।

জানা গেছে, ফেনীতে মুজিব জন্মশতবার্ষিকীতে ১ হাজার ৯৬২ পরিবারকে ভূমিসহ ঘর দেয়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে ফেনী সদর উপজেলায় ২২৬ পরিবার, সোনাগাজীতে ১ হাজার ৩১৫ পরিবার, দাগনভূঞায় ১৭৭ পরিবার, ছাগলনাইয়ায় ১১২ পরিবার, পরশুরামে ৩৮টি এবং ফুলগাজীতে ৯৪ পরিবার এ সুবিধা ভোগ করতে পারবে।

এর আগে, চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে ১২৫টি ঘর সুবিধাভোগীদের মধ্যে হস্তান্তর করা হয়। ওই সময়ে সদর উপজেলায় ৪০টি, সোনাগাজী উপজেলায় ৩৫টি, দাগনভূঞা উপজেলার ৩০টি, ফুলগাজী উপজেলার ২০টি ঘরের কবুলিয়াত দলিল, নামজারি খতিয়ান, ডিসিআর ও ঘর বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে।

আপনার মতামত দিন

Android App
Android App
Android App
© Natun Feni. All rights reserved. Design by: GS Tech Ltd.