ফেস মাস্ক রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়? • নতুন ফেনীনতুন ফেনী ফেস মাস্ক রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়? • নতুন ফেনী
 ফেনী |
১৮ জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৪ মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

ফেস মাস্ক রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়?

লাইফস্টাইল ডেস্কলাইফস্টাইল ডেস্ক
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:৪৫ পূর্বাহ্ণ, ২৪ নভেম্বর ২০২০

নতুন এক গবেষণায় জানাগেছে ফেস মাস্ক করোনা প্রতিরোধেই নয়, এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি করে। জেনে নিন এ সম্পর্কে। কোভিড-১৯ থেকে বাঁচতে ফেস মাস্ক কতটা কার্যকর এ কথা সবারই জানা। কিন্তু ফেস মাস্ক কি শরীরের অভ্যন্তরীণ রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও সাহায্য করে। কোভিড-১৯ থেকে বাঁচতে ফেস মাস্ক কতটা কার্যকর এ কথা সবারই জানা। কিন্তু ফেস মাস্ক কি শরীরের অভ্যন্তরীণ রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও সাহায্য করে।

সম্প্রতি একটি মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশ পাওয়া নতুন এক রিসার্চ পেপারে বলা হয়েছে, ফেস মাস্ক যেমন মানুষকে ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচায়, তেমনই ভাইরাস সংক্রমণের ফলে হওয়া রোগ থেকে বাঁচাতেও সাহায্য করে ইমিউনিটি বা শরীরের অভ্যন্তরীণ রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে।

সম্প্রতি একটি মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশ পাওয়া নতুন এক রিসার্চ পেপারে বলা হয়েছে, ফেস মাস্ক যেমন মানুষকে ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচায়, তেমনই ভাইরাস সংক্রমণের ফলে হওয়া রোগ থেকে বাঁচাতেও সাহায্য করে ইমিউনিটি বা শরীরের অভ্যন্তরীণ রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে।

নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অফ মেডিসিনে প্রকাশিত এই সমীক্ষায় জানানো হয়েছে, মানুষ যদি ফেস মাস্ক পরে থাকে তবে ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়ার হাত থেকে রক্ষা পাবে। জার্নালে প্রকাশিত এই গবেষণাপত্র সত্য বলে প্রমাণও হয়েছে। যত দিন করোনার ভ্যাকসিন না আসছে, ততদিন ফেস মাস্ক পরে থাকলে তা টিকার মতোই মানুষকে সুরক্ষিত রাখবে।

নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অফ মেডিসিনে প্রকাশিত এই সমীক্ষায় জানানো হয়েছে, মানুষ যদি ফেস মাস্ক পরে থাকে তবে ভাইরাসের ছড়িয়ে পড়ার হাত থেকে রক্ষা পাবে। জার্নালে প্রকাশিত এই গবেষণাপত্র সত্য বলে প্রমাণও হয়েছে। যত দিন করোনার ভ্যাকসিন না আসছে, ততদিন ফেস মাস্ক পরে থাকলে তা টিকার মতোই মানুষকে সুরক্ষিত রাখবে।

দ্য টেলিগ্রাফ ইউকে-র সংবাদ অনুযায়ী, প্রথমে যেভাবে করোনার ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছিল, তাতে বহু মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েন। মাস্ক পরার ফলেই এই ভাইরাস অনেকাংশে প্রতিহত হয়। মাস্ক পরার ফলে কারও নাকের সর্দি অথবা ড্রপলেটও অন্য কারও গায়ে গিয়ে পড়তেও পারে না। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনার সময়ে ফেস মাস্ক পড়তে বিশ্ববাসীকে অনুরোধ জানায়। এতে ভাইরাসের হাত থেকে অনেকাংশে রক্ষা পাওয়া যাবে বলে তারা আশ্বাস দেয়।

দ্য টেলিগ্রাফ ইউকে-র সংবাদ অনুযায়ী, প্রথমে যেভাবে করোনার ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছিল, তাতে বহু মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েন। মাস্ক পরার ফলেই এই ভাইরাস অনেকাংশে প্রতিহত হয়। মাস্ক পরার ফলে কারও নাকের সর্দি অথবা ড্রপলেটও অন্য কারও গায়ে গিয়ে পড়তেও পারে না। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনার সময়ে ফেস মাস্ক পড়তে বিশ্ববাসীকে অনুরোধ জানায়। এতে ভাইরাসের হাত থেকে অনেকাংশে রক্ষা পাওয়া যাবে বলে তারা আশ্বাস দেয়।

ভারতীয় চিকিৎসক ডা. শৈলজা বৈদ্য গুপ্ত, যিনি মাস্ক-বিধি নিয়ে সব থেকে সরব ছিলেন, তিনি ঘরে বানানো মাস্কের পরিকল্পনার উপরও এর পরে জোর দেন। নিউজ ১৮-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ডা. গুপ্ত জানান, ভারতের মতো জায়গায় আইসোলেশন এবং সোশ্যাল ডিস্টেনসিং মানা খুবই কঠিন। ভারতে এর থেকে মাস্ক পরাই কাজের কাজ হবে। শৈলজা আরও বলেন, মাস্ক পরে কোনও উপকার হয় না কি হয় না- এই নিয়ে অনেক বিতর্ক আছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সিলমোহর পাওয়া অনেক বৈজ্ঞানিক পেপার প্রমাণ করেছে, হাঁচি-কাশির মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে ফেস মাস্ক পরা খুবই জরুরি।

ভারতীয় চিকিৎসক ডা. শৈলজা বৈদ্য গুপ্ত, যিনি মাস্ক-বিধি নিয়ে সব থেকে সরব ছিলেন, তিনি ঘরে বানানো মাস্কের পরিকল্পনার উপরও এর পরে জোর দেন। নিউজ ১৮-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ডা. গুপ্ত জানান, ভারতের মতো জায়গায় আইসোলেশন এবং সোশ্যাল ডিস্টেনসিং মানা খুবই কঠিন। ভারতে এর থেকে মাস্ক পরাই কাজের কাজ হবে। শৈলজা আরও বলেন, মাস্ক পরে কোনও উপকার হয় না কি হয় না- এই নিয়ে অনেক বিতর্ক আছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সিলমোহর পাওয়া অনেক বৈজ্ঞানিক পেপার প্রমাণ করেছে, হাঁচি-কাশির মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে ফেস মাস্ক পরা খুবই জরুরি।
সম্পাদনা:আরএইচ/এইচআর

আপনার মতামত দিন

Android App
Android App
Android App
© Natun Feni. All rights reserved. Design by: GS Tech Ltd.