ফেনীতে সাংবাদিকের উপর হামলা, আটক-১ • নতুন ফেনীনতুন ফেনী ফেনীতে সাংবাদিকের উপর হামলা, আটক-১ • নতুন ফেনী
 ফেনী |
২৯ জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ফেনীতে সাংবাদিকের উপর হামলা, আটক-১

নিজস্ব প্রতিনিধিনিজস্ব প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১০:২৪ পূর্বাহ্ণ, ০২ এপ্রিল ২০২১

ফেনীতে সন্ত্রাসীদের হাতে জিম্মি দশা থেকে এক প্রবাসীকে উদ্ধারে পুলিশকে সহায়তা করতে গিয়ে সময় টিভির রিপোর্টার আতিয়ার সজলসহ ২জন সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে মূল হামলাকারী জিহাদকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

পুলিশ ও ক্ষতিগ্রস্থদের সূত্র জানান, সৌদি প্রবাসি জনৈক নওশাদের সাথে ফেনী শহরের শাস্তি ধারা আবাসিক এলাকার জাহিদের সাথে টাকার লেনদেন নিয়ে বিরোধ ছিল। নওশাদের সৌদি রুমমেট ফারুক সম্প্রতি দেশে আসেন। ফারুকের মা ও স্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়ে ফেনীর একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন। এ অবস্থায় জাহিদ সন্ধ্যায় ক্লিনিকে থেকে ফারুককে শহরের লতিফ টাওয়ারের নিচে ডেকে আনে। পরে চা খাওয়ার কথা বলে পাশের জালালিয়া রেস্টুরেন্টে নিয়ে যায়। সেখানে পূর্ব থেকে অবস্থান নেয়া ৭/৮জন সন্ত্রাসী ফারুককে নওশাদের কাছ থেকে টাকা আদায় করে দিতে চাপ সৃষ্টি করে। ফারুক সন্ত্রাসীদের জিম্মিদশা থেকে বাঁচতে কৌশলে মোবাইল ফোনে তার পূর্ব পরিচিত সময় টিভির রিপোর্টার আতিয়ার সজলের সাহায্য চান। এসময় সজল ডিবি পুলিশ নিয়ে ফেনী শহরের মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে জালালিয়া রেস্টুরেন্টে গেলে দু’পক্ষের মধ্যে সমঝোতা হয়ে গেছে বলে জাহিদ পুলিশকে জানায়। এ কথা বিশ্বাস করে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। পুলিশ চলে যাওয়ার পরপরই এক পর্যায়ে জাহিদের নেতৃত্বে তার ভাগিনা শাহীনসহ ৭/৮ জন সন্ত্রাসী পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী ফারুকের ওপর হামলা করে। এসময় সজল প্রবাসী ফারুককে বাঁচাতে চাইলে ‘পুলিশ কেন এনেছিস’ এই কথা বলে সজলের উপরও জাহিদের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা অতর্কিত লোহার রড দিয়ে এলোপাথাড়ি মারধর করে তার মোবাইল ভাঙচুর করে ও পকেটে থাকা টাকা পয়সা ছিনিয়ে নেয়। একপর্যায়ে হামলকারীরা কুমিল্লা বাসস্ট্যান্ড এলাকার লতিফ টাওয়ারের সামনে গিয়ে দ্বিতীয় দফায় কয়েকটি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে। হামলায় আহত ফারুক ও সজল ফেনী জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। এঘটনায় ফেনী মডেল থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। হামলার পর ঘটনাস্থল থেকে গোয়েন্দা পুলিশ জাহিদকে আটক করেছে। জাহিদ ফেনীর ফুলগাজী উপজেলার দরবারপুর ইউনিয়নের ধলিয়া গ্রামের মৃত শেখ আহম্মদের ছেলে।


এবিষয়ে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক এনএন নুরুজ্জামান জানান, প্রবাসী নওশাদ ও জাহিদের মধ্যে টাকা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে এ হামলার ঘটনা ঘটে। সাংবাদিক সজল ফারুককে বাঁচাতে চাইলে সজলের উপরও হামলা করে। অভিযুক্ত জাহিদকে আটক করা হয়েছে। এঘটনায় ফেনী মডেল থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
ফেনী প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ ও সময় টিভির ফেনীর রিপোর্টার আতিয়ার সজলের উপর হামলার ঘটনায় ফেনী প্রেসক্লাব নিন্দা জানিয়েছেন। এক বিবৃতিতে ফেনী প্রেসক্লাবের সভাপতি শওকত মাহমুদ ও সাধারণ সম্পাদক আরিফুর রহমান এঘটনায় হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

আপনার মতামত দিন

Android App
Android App
Android App
© Natun Feni. All rights reserved. Design by: GS Tech Ltd.