ফেনীতে হিন্দু সম্প্রদায়ের শ্মশান দখলের চেষ্টার অভিযোগে সাংবাদিক সম্মেলন • নতুন ফেনীনতুন ফেনী ফেনীতে হিন্দু সম্প্রদায়ের শ্মশান দখলের চেষ্টার অভিযোগে সাংবাদিক সম্মেলন • নতুন ফেনী
 ফেনী |
২৪ জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফেনীতে হিন্দু সম্প্রদায়ের শ্মশান দখলের চেষ্টার অভিযোগে সাংবাদিক সম্মেলন

রাশেদুল হাসানরাশেদুল হাসান
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৭:০৬ অপরাহ্ণ, ২৩ আগস্ট ২০১৬

নিজস্ব প্রতিনিধি>>
ফেনীতে হিন্দু সম্প্রদায়ের সেবাখোলা ও শ্মশান দখলের চেষ্টার অভিযোগে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে ক্ষতিগ্রস্থ সংখ্যালঘু সম্পদায়ের সদস্যরা। মঙ্গলবার দুপুরে ফেনী রিপোর্টার্স ইউনিটি সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সেবাখোলা ও শ্মশান কমিটির আহবায়ক সনীল চন্দ্র দে।
সংসাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে শ্মশান কমিটির আহবায়ক সুনীল চন্দ্র জানান, ফেনী পৌরসভার ১৭নং ওয়ার্ডের ১৩৭৯ দাগে এসএ ৪৭২১ দাগে সাড়ে ১৭ শতাংশ জমি দীর্ঘনি ধরে শ্মশান ও ধর্মীয় সেবাখোলা হিসেবে ব্যাবহৃত হয়ে আসছে। কিন্তু বিগত কয়েক মাস ধরে জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক কোষাধক্ষ্য হাজী ওবায়দুল হক ও স্থানীয় কাউন্সিলর মোঃ মানিকসহ একটি প্রভাবশালী মহল ওই শ্মশানটি জোর পূর্বক দখলে নিয়ে বিক্রির চেষ্টা করছে। এ শ্মশানের সেবায়েত ও পুরোহিতরা দখলের চেষ্টার প্রতিবাদ করায় ভুমিদূশ্যরা তাদেরকে একাধিকবার মারধর ও হত্যার চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় সংখালঘুরা থানায় লিখিত অভিযোগ দিলেও পুলিশ রহাস্যজনক কারণে ভূমিদস্যু এ প্রভাবশালীদের বিরুদ্বে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেন। তাদের অব্যাহত হুমকি ধুমকিতে সংখালঘুরা নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছে। এ ব্যাপারে তারা প্রশাসন সহ সাংবাদিকদের সহযোগীতা কামনা করেছেন।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিতি ছিলেন জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শুকদেব নাথ তপন, সাংগঠনিক সম্পাদক ও সদর উপজেলা পূজাপরিষদের সাধারণ সম্পাদক লিটন সাহা,শ্মশান কমিটির সদস্য সুধাংশু বিকাশ, সুনীল চন্দ্র দে, কান্তি লাল দাস ও কার্ত্তিক চন্দ্র দাস ও ক্ষতিগ্রস্থ সংখ্যালঘু সম্পদায়ের সদস্য বৃন্দ।
সম্পাদনা: আরএইচ

আপনার মতামত দিন

Android App
Android App
Android App
© Natun Feni. All rights reserved. Design by: GS Tech Ltd.