চোখ ধাঁধানো আয়োজনে শেষ হলো ফেনী বিয়ে উৎসব • নতুন ফেনীনতুন ফেনী চোখ ধাঁধানো আয়োজনে শেষ হলো ফেনী বিয়ে উৎসব • নতুন ফেনী
 ফেনী |
১৯ জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

চোখ ধাঁধানো আয়োজনে শেষ হলো ফেনী বিয়ে উৎসব

নিজস্ব প্রতিনিধিনিজস্ব প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৯:৩৮ অপরাহ্ণ, ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১

জমজমাট, চোখ ধাঁধানো আয়োজনে শেষ হলো ২য় ফেনী বিয়ে উৎসব। ফেনী জেলাসহ আশে পাশের জেলা থেকে হাজারো মানুষের ঢল নেমেছিলো গ্র্যান্ড সুলতান কনভেনশন সেন্টারে। আপন ইভেন্টসের আয়োজনে এ উৎসবে প্রায় ১৫ হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। পরিবার, পরিজন নিয়ে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীর সংখ্যা ছিল বেশি। এ উৎসবকে ঘিরে সারা ফেনীতে বিরাজ করছে বিয়ের আমেজ । অনেকেই আবার বলছে আপনের বিয়ে উৎসব নয় ফেনীর বিয়ে হয়েছে।

৯ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার সমাপনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ফেনী শহর ব্যাবসায়ী সমিতির সাধারন সম্পাদক পারভেজুল ইসলাম হাজারী,সময় টিভির ফেনী ব্যুরো ইনচার্জ বখতেয়ার ইসলাম মুন্না, বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও নারী উদ্যোক্তা লায়ন মইনুর জাহান লাবণী। সমাপনি অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আপন ইভেন্টসের পরিচালক শরিফুল ইসলাম অপু। উৎসবের ৩ দিনই সঞ্জালনায় ছিলেন হোসাইন আরমান।

৭ ফেব্রুয়ারি উৎসবের উদ্বোধন হয়। দিন বাড়ার সাথে সাথে দর্শনার্থীদের উপস্থিতিও বাড়তে থাকে। উৎসব প্রাঙ্গন পরিণত হয়েছে বিয়ের বাড়িতে। তরুণ-তরুণীরা হলুদ, বর-কনে সাজে সেজেছে। প্রধম দিন ফেনীর ঢোল, দ্বিতীয় দিনে ব্যান্ড ফেনীয়ান, ৩য় দিন হেভেন’স ডোর গান পরিবেশন করেন। তবে উৎসবের সবচেয়ে চমকপ্রদ ইভেন্ট বর কনের সাঝ প্রতিযোগিতা। দর্শনার্থীরা এই ইভেন্টটি সিবচেয়ে বেশি উপভোগ করেন।

মেলায় আগত দর্শনার্থীরাও অনেক খুশি । তারা আয়োজকদের বেশ প্রশংসা করছে। বেছাকিনা ভালো হওয়ায় তেমনি খুশি স্টলের মালিকরাও। তারা জানান প্রত্যাশার চেয়ে বেশি কিছু পেয়েছে তারা।

ষাটোর্ধ মহি উদ্দিন জানান, আমরা মেয়ে, জামাই নাতনীদের সাথে এখানে ঘুরতে আসলাম। ওরা অনেক খুশি । ছবি তুলতেছে। কোন বিশৃঙ্খলা নেই সুন্দর আয়োজন।

আরেক দর্শনার্থী কালাম জানান, আমার পরিবার নিয়ে ঘুরতে আসলাম। ভীড় অনেক বেশি হলেও ব্যাবস্থাপনা অনেক ভালো হইছে। মেয়ের মা, মেয়েদের জন্য কেনাকাটা করলাম। দামও মার্কেট থেকে বেশি না।

ফেনীর বাইরে থেকে আসা সিয়াম জানান, আমার বন্ধুর আমন্ত্রনে ফেনী বিয়ে উৎসব দেখতে এসেছি। খুব ভালো লাগছে এত চমৎকার আয়োজন আগে কখনো দেখিনি আমি । সত্যিই ফেনীর মানুষ এবং আপন ইভেন্ট সেরা।

ওসমান গণি রাসেল জানায়, ছোট শহরে এত বড় আয়োজন দেখে অবাক হয়েছি। সবাই অনেক মজা করছে । আমাদের কাছে বেশ ভালো লাগছে অনেকদিন পর ফেনীতে এম অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়েছে। আশা করি আপন ইভেন্ট সামনেও এমন সুন্দর আয়োজন ফেনীবাসীকে উপহার দিবে।

ফেনী গার্লস হাই স্কুলের শিক্ষার্থী নাইরা জানান, বিয়ে উৎসব এত সুন্দর হবে কল্পনাও করিনি । অনেক ছবি তুলেছি। অনেকগুলা সেল্ফিজোন করা হয়েছে। সবগুলাই খুব সুন্দর । ইচ্ছে করছে খালি ছবি তুলতেই থাকি।

খাবারের স্টলগুলোতেও ছিলো প্রচন্ড ভীড়। যেন আনার আগেই শেষ হয়ে যাচ্চে সব খাবার। মস্কো বেকারসের পরিচালক জানান, প্রচুর পরিমাণে বিক্রি হয়েছে। যদি জায়গাটা আরো একটু বড় হতো তাহলে মানুষ বসে বসে খেতে পারতো। আমাদের যেমন প্রচারনা হচ্ছে তেমন বিক্রি। আমরা অনেক খুশি। ভবিষৎতেও এমন আয়োজনের আরো বড় পরিসরে যুক্ত থাকবো ইনশাআল্লাহ।

এসএইচ ফ্যাশন বুটিকসের স্বত্ত্বাধিকারী শারমিন হাসান জানান, সত্যিই অসাধার আয়োজন এটি। অনেক ভালো সাড়া পাচ্ছি। প্রচুর বেচা কেনা হচ্ছে। মানুষ দেখে শুনে তার পছন্দমত জিনিস ক্রয় করছে। আপন ইভেন্টসের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই এত বিশাল আয়োজনে আমাদেরকে অংশগ্রহনের সুযোগ প্রদানের জন্য।

তুলির ছোঁয়া স্টলের স্বত্ত্বাধিকারী বিপাশা রায় জানান, আমার কাছে খুব ভালো লাগছে। যেমন বিক্রি হয়েছে তার চেয়ে বেশি প্রচার হচ্ছে । আশা করি এই পরিচিত আগামী দিনে কাজে লাগবে। এত এত মানুষ ভীড় করছে বলে শেষ করার মত না । আমরা চাই এমন আয়োজন ফেনীতে সব সময় হোক।

নোয়াখালী থেকে আসা নোয়াখারী টিভির হামিদ রনি, এ উৎসব দেখে মনে হয়েছে ফেনী নয় ঢাকার কোন অনুষ্ঠানে এসেছি। অত্যন্ত ভালো মানের একটি অনুষ্ঠান সফলভাবে আয়োজন করতে পেরেছে আপন ইভেন্টস। টিভির দর্শকরাও এটিকে ইতিবাচকভাবে দেখেছে। বিয়ে উৎসবের লাইভ, রিপোর্টগুলো অনেক বেশি সাড়া পেলতে সক্ষম হয়েছে।

অনুষ্ঠান আয়োজক আপন ইভেন্টসের পরিচালক শরিফুল ইসলাম জানান, আমরা ভাবিনি এত মানুষ আসবে। আমরা ফেনীবাসীর কাছে কৃতজ্ঞ । আমাদের ডাকে সাড়া দিয়ে বিয়ে উৎসবকে সফল করার জন্য। এটি একটি পারিবারিক মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে। আমরা যে উদ্দেশ্য নিয়ে উৎসব আয়োজন করেছি তা সফল। আমরা দেখাতে চেয়েছি বিয়ের বাজার করার জন্য ফেনীর বাইরে যেতে হবেনা। ফেনীতে অনেক স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান আছে। এবং সেগুলো আমরা ফেনীর মানুষের সামনে তুলে ধরেছি। কৃতজ্ঞতা জানাই ফেনীর মিডিয়াগুলোর প্রতি তারা আমাদেরকে অনেক সাপোর্ট দিয়ে এ উৎসবকে মানুষের কাছে পৌঁছে দিয়েছে।

উৎসবে ৩৫ স্টল অংশগ্রহন করেছেন। ব্রাইডাল র‌্যাম্প শো, কাপল শো, নৃত্য, কৌতুক, নাটিকা, গান পরিবেশন, ফটো কনটেস্ট সহ নানা চমকপ্রদ ইভেন্টে ভরপুর ছিলে উৎসব। প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে শুরু হয়ে রাত ৯টা পর্যন্ত চলে এ অনুষ্ঠান।

‘বিয়ের বাজার একসাথে, প্রানের শহর ফেনীতে’ এই স্লোগানকে ধারন করে ৭-৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলে এ উৎসব। স্বনামধন্য অনুষ্ঠান ব্যবস্থাপনা প্রতিষ্ঠান আপন ইভেন্টস এর আয়োজনে ফরনেক্সট বিডি ডটকম, রাঙ্গা বিউটি পার্লার, মায়াবী, সোনালী জুয়েলার্স, কোল্ড কাব, ঝুমুর শপিং স্পট, বইনাস, ক্যারিয়ার প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান দেখা হবে বিজয়ে, ফটোগ্রাফি প্রতিষ্ঠান ড্রিম আর্টি সান এর সহযোগিতায় ২য় বারের মত আয়োজিত হয়েছে এই উৎসব। এর আগে ২০১৭ সালে শহীদ জহির রায়হান হল মাঠে এটি অনুষ্ঠিত হয়।
সম্পাদনা:আরএইচ/এইচআর

আপনার মতামত দিন

Android App
Android App
Android App
© Natun Feni. All rights reserved. Design by: GS Tech Ltd.